মিরসরাইয়ে ওয়ার্কশপে আহত শিশু শ্রমিক-পালিয়েছে মালিক

মিরসরাই-ওয়ার্কশপ-শিশু শ্রমিক-মালিক

মিরসরাই প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে অবৈধ ভাবে গড়ে উঠা একটি গ্রীল ওয়ার্কশপে কাজ করার সময় ধারালো গ্রীল কাটার মেশিনে আহত হয়েছে এক শিশু শ্রমিক।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টম্বর) সকালে মিরসরাই সদরে বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের দক্ষিণ পাশের হারুণের গ্যারেজে এই দূর্ঘটনাটি ঘটে। আহত শিশুকে মিরসরাই স্বাস্থ কেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পরিবারের কাছে পাঠানো হয়েছে।

আহত শিশুর পিতা মোফাজ্জল জানান, তার বাড়ি কিশোরগঞ্জ। জিবিকার তাগিদে মিরসরাই পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড বড়তল এলাকার শাহ আলমের ভাড়া বাড়িতে থাকেন।

দারীদ্রতার কারনে শিশু সন্তান হোসাইনকে কাজ শেখার জন্য হারুনের গ্রীলের গ্যারেজে দেন। মাসিক তেমন কোন বেতন পায়না শিশু হোসাইনসহ সেখানে কর্মরত ৮ বছরের অন্য একটি শিশুও।

পেটে ভাতে খেয়ে কাজ শেখে তারা। তবে হারুণ শিশুদের কাজ শেখানোর নামে ভারী যন্ত্রপাতি দিয়ে ঝুকিপূর্ণ কাজ করায় নিয়মিত।

ধারালো ভারি যন্ত্রপাতি দিয়ে ঝুকিপূর্ন কাজ করার সময় মঙ্গলবার সকালে শিশু হোসাইনের বাম হাতের কব্জিতে আঘাত লাগে। এতে কেটে গিয়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়।

ঘটনাটি স্থানীয় এক সাংবাদিকের নজরে আসে। সে শিশুটিকে হাসাপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠাতে অনুরোধ করলে ওই সাংবাদিকের সাথেও খারাপ ব্যবহার করে ঘটনাস্থল থেকে চলে যেতে বলেন গ্যারেজ মালিক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই সাংবাদিক জানান, শিশুটির হাত থেকে রক্তক্ষরণ হতে দেখে গ্যারেজ মলিক হারুণকে শিশুটির চিকিৎসার জন্য অনুরোধ করলে সে বাজে ব্যাবহার শুরু করে।

প্রতিবাদ করলে সে তার গ্যারেজে থাকা ১০কেজি ওজনের ভারি লোহার হাতুড়ি দিয়ে মারতে আসে। এসময় জরুরী সেবা নাম্বার ৯৯৯ এ অভিযোগ করলে মিরসরাই থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌছায়।

তবে তার আগেই গ্যারেজ মালিক হারুণ ও তার লোকজন পালিয়ে যায়। থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হরুণকে থানায় তলব করে।

মিরসরাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবির হোসেন বলেন, শিশু আহতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠালে গ্যারেজ মলিক হারুণ পালিয়ে যায়।

সাংবাদিকের সাথে অসৌজন্য আচরণ ও শিশু আহতের প্রাথমিক তথ্য পাওয়া গেছে। শিশুটির অভিভাবক লিখিত অভিযোগ দিলে পরবর্তী ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

একই বিষয়ে মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমানের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, শিশু শ্রমিক নিষিদ্ধ, তার উপরে গ্যারেজটি স্থাপন করা হয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে যা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

পুলিশের সাথে কথা বলে গ্যারেজ মালিকের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান।

ডিখ/আশরাফ/প্রিন্স