সরকারি শূন্যপদ রয়েছে সাড়ে তিন লাখের বেশি

সরকারি-শূন্যপদ

জাতীয় ডেস্ক : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও দপ্তরে সাড়ে তিন লাখের বেশি শূন্যপদ রয়েছে।

তিনি বলেন, ৩ লাখ ৫৮ হাজার ১২৫টি শূন্যপদ রয়েছে। এরমধ্যে প্রথম শ্রেণির শূন্যপদের সংখ্যা ৪৩ হাজার ৩৩৬টি। এছাড়া দ্বিতীয় শ্রেণির ৪০ হাজার ৫৬১টি, তৃতীয় শ্রেণির ১ লাখ ৫১ হাজার ৫৪৮টি এবং চতুর্থ শ্রেণির শূন্যপদ রয়েছে ১ লাখ ২২ হাজার ৬৮০টি।

এছাড়া ৪০তম বিসিএসের নন-ক্যাডার পদে ৫ হাজার ৪৩৬টি শূন্যপদের অধিযাচন (ফরমায়েশ) পাওয়া গেছে। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে তিনি এ তথ্য জানান।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই অধিবেশনের শুরুতে প্রশ্নোত্তর টেবিলে বিষয়টি উপস্থাপিত হয়।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানান, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে সর্বশেষ প্রকাশিত ‘স্ট্যাটিসটিকস অব সিভিল অফিসার্স অ্যান্ড স্টাফস-২০২১’ বইয়ের (জুন, ২০২২ সালে প্রকাশিত) তথ্য অনুযায়ী- বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তর, পরিদপ্তর ও সরকারি কার্যালয়ে প্রথম শ্রেণির ৪৩ হাজার ৩৩৬টি, দ্বিতীয় শ্রেণির ৪০ হাজার ৫৬১টি, তৃতীয় শ্রেণির ১ লাখ ৫১ হাজার ৫৪৮টি ও চতুর্থ শ্রেণির ১ লাখ ২২ হাজার ৬৮০টি পদ খালি রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ৪০তম বিসিএসের মাধ্যমে ১ হাজার ৯২৯ জনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ৪১তম বিসিএসের মৌখিক পরীক্ষা চলমান।

এছাড়াও ৪২তম বিশেষ বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারে ৩ হাজার ৯৬৬ সহকারী সার্জন নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আর ৪৩তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়নের কাজ চলছে।

পাশাপাশি ৪৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা ১১ জানুয়ারি শেষ হয়েছে। আগামী মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে ৪৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি টেস্টের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারিত আছে।

এ সময় আদালতে মামলা থাকায় নিয়োগবিধি প্রণয়ন কার্যক্রম শেষ না হওয়ায় এবং পদোন্নতিযোগ্য প্রার্থী না পাওয়ায় কিছু খালি পদ পূরণ করা যায়নি বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

এ দিন অধিবেশনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নুর অপর এক প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ৪০তম বিসিএসের নন-ক্যাডার পদে ৫ হাজার ৪৩৬টি শূন্যপদের অধিযাচন (ফরমায়েশ) পাওয়া গেছে। তবে যাচাই-বাছাই শেষে প্রকৃত সুপারিশযোগ্য শূন্যপদের সংখ্যা জানানো যাবে বলেও উল্লেখ করেন প্রতিমন্ত্রী।

দেশের খবর/প্রিন্স