করোনায় দেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩২ মৃত্যু ও শনাক্ত ৮৪৮৩

দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বাড়ছে

জাতীয় খবর : দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মহামারি করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ও মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ১৩২ জনের। 

একই সময়ে নতুন সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৮ হাজার ৪৮৩ জনের। একদিনে করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণের এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পরিমাণ।

এর আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৪৩ জনের মৃত্যুই ছিল দেশে একদিনে সর্বোচ্চ। গতকাল বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) হয় এ রেকর্ড। তাছাড়া গত পরশু বুধবার (৩০ জুন) একদিনে সর্বোচ্চ ৮ হাজার ৮৮২ জনের শরীরে করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছিল।

শুক্রবার (২ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে গত ২৪ ঘণ্টার করোনা পরিস্থিতি তুলে ধরা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তির তথ্য বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫৬৬টি ল্যাবে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এসব ল্যাবে ৩০ হাজার ৩৮৫টি নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছে ৩০ হাজার ১২টি নমুনা।

এরমধ্যে নতুন সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৮ হাজার ৪৮৩ জনের। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল নয় লাখ ৩০ হাজার ৪২ জনে।

একই সময়ে মারা গেছেন ১৩২ জন। মারা যাওয়াদের মধ্যে মধ্যে পুরুষ ৮১ জন, নারী ৫১ জন। তাদের ১৩ জন বাসায় এবং বাকি ১১৯ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

এ নিয়ে দেশে এই সংক্রমণে প্রাণহানি দাঁড়ালো ১৪ হাজার ৭৭৮ জনে। সংক্রমণ বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টাতে খুলনা বিভাগে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে। ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে এ বিভাগে। তাছাড়া এদিন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩০ জন মারা গেছেন ঢাকা বিভাগে। রাজশাহী বিভাগ ও চট্টগ্রাম বিভাগে মারা গেছে ২৪ জন করে।

এছাড়া রংপুর বিভাগে ৯ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ছয় জন এবং বরিশাল ও সিলেট বিভাগে দুই জন করে মারা গেছেন গত ২৪ ঘণ্টায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৫০৯ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত মোট ৮ লাখ ২৫ হাজার ৪২২ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন। সংক্রমণ বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৮ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

ডিখ/সৃষ্টি