মাহমুদুল্লাহর বিদায়ী মঞ্চে বাংলাদেশের রেকর্ড গড়া জয়

৫০তম টেস্টেই নিজের ক্যারিয়ারের ইতি টানলেন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। টেস্টে তার শেষ ম্যাচে দল পেয়েছে রানের হিসেবে নিজেদের দ্বিতীয় বৃহত্তম জয়, যা বিদেশের মাটিতে টাইগারদের সর্বোচ্চ রানের জয়। ব্যাট হাতে ১৫০ রানের অপরাজিত ইনিংস উপহার দিয়ে যে জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন খোদ রিয়াদ।

রিয়াদের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসের সাথে লিটন দাসের ৯৫, তাসকিন আহমেদের ৭৫ ও অধিনায়ক মুমিনুল হকের ৭০ রানের ইনিংসে ভর করে ৪৬৮ রান জড়ো করে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নামা জিম্বাবুয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাকিব আল হাসানের বোলিং তোপে অলআউট হয় ২৭৬ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ ১ উইকেটে ২৮৪ রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে। দলের পক্ষে শতক হাঁকান সাদমান ইসলাম (১১৫*) ও নাজমুল হোসেন শান্ত (১১৭)। এতে জিম্বাবুয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪৭৭।

সেই লক্ষ্য তাড়া করতে হলে গড়তে হত বিশ্বরেকর্ড। তবে জিম্বাবুয়ের সামনে সুযোগ ছিল ড্র করার। সেক্ষেত্রে ব্যাট করতে হত ১৩০ ওভারের মত। স্বাগতিকরা ব্যাট করতে সমর্থ হয়েছে ৯৪.৪ ওভার। ২৫৬ রানে অলআউট হয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশ শেষ দিনের দ্বিতীয় সেশনেই জয় নিশ্চিত করেছে।

যদিও দ্বিতীয় সেশনে ডোনাল্ড টিরিপানো ও ব্লেসিং মুজারাবানির গড়া প্রতিরোধ ধৈর্যের পরীক্ষা নিয়েছে বাংলাদেশের। প্রথম সেশনের পারফরম্যান্সে দুইশর নিচে জিম্বাবুয়েকে অলআউটের সম্ভাবনা জাগিয়েও টাইগারদের লড়তে হয়েছে দ্বিতীয় সেশনের ‘অতিরিক্ত সময়’ পর্যন্ত। টিরিপানো ১৪৪ বলে ৫২ রান করে ফেরেন সাজঘরে। ৫১ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত থাকেন মুজারাবানি। ম্যাচ শেষ হওয়ার আগে তাসকিনের সাথে তার মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ দৃশ্যমান হয়েছে বারবার।

রানের হিসেবে ২২০ রানের এই জয় বাংলাদেশের জন্য দ্বিতীয় বৃহত্তম। রানের হিসেবে সবচেয়ে বড় জয় ছিল ২২৬ রানের, এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই। রিয়াদের কাব্যিক ইনিংস ছাড়াও বল হাতে জয়ে বড় অবদান রেখেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ ও সাকিব আল হাসান।

প্রথম ইনিংসে মিরাজ পেয়েছিলেন পাঁচ উইকেট, সাকিব চারটি। দ্বিতীয় ইনিংসে চারটি করে পেয়েছেন তাসকিন ও মিরাজ। এবাদত ও সাকিব পান একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

টস : বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস : ৪৬৮/১০ (১২৬ ওভার)
রিয়াদ ১৫০*, লিটন ৯৫, তাসকিন ৭৫, মুমিনুল ৭০
মুজারাবানি ৯৪/৪, তিরিপানো ৫৮/২

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস : ২৭৬/১০ (১১১.৫ ওভার)
কাইতানো ৮৭, টেলর ৮১, শুম্বা ৪১
মিরাজ ৮২/৫, সাকিব ৮২/৪

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস : ২৮৪/১ ডিক্লেয়ার (৬৭.৪ ওভার)
শান্ত ১১৭*, সাদমান ১১৫*, সাইফ ৪৩;
এনগারাভা ১/৩৬

জিম্বাবুয়ে ২য় ইনিংস : ২৫৬/১০ (৯৪.৪ ওভার)
টেলর ৯২, টিরিপানো ৫২, মুজারাবানি ৩০*, মায়ার্স ২৬,
মিরাজ ৬৬/৪, তাসকিন ৮২/৪

ফল : বাংলাদেশ ২২০ রানে জয়ী।