সিআরবিতে হাসপাতাল প্রকল্প বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে

সিআরবিতে-হাসপাতাল প্রকল্প-বাতিল-আন্দোলন চলবে

দেশের খবর,চট্টগ্রাম।। সিআরবিতে হাসপাতাল প্রকল্প বাতিলের দাবিতে চট্টগ্রামের বিশিষ্টজনদের আহ্বানে সব শ্রেণি-পেশার নাগরিকদের অংশগ্রহণে প্রতিবাদী কর্মসূচির আয়োজন করে নাগরিক সমাজ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সিআরবি সাত রাস্তার মোড় এলাকায় আয়োজিত প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচি থেকে সিআরবিতে হাসপাতাল প্রকল্প বাতিল না করা পর্যন্ত লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন বক্তারা।

প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচিতে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত বলেন, চট্টগ্রামের মানুষ এখানে বেসরকারি হাসপাতাল চায় না। এ আন্দোলনে শুধু চট্টগ্রামের সর্বস্তরের মানুষ নয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দও সামিল হয়েছেন। সবাই বলেছেন সিআরবি রক্ষা করতে হবে চট্টগ্রামের স্বার্থে।

যতদিন হাসপাতাল নির্মাণের এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না হবে ততদিন চট্টগ্রামবাসী এ আন্দোলন পরিচালনা করবে। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত স্থান এই সিআরবি। ঐক্যবদ্ধভাবে চট্টগ্রামের স্বার্থে আমরা সবাই এই আন্দোলন এগিয়ে নিয়ে যাব।

কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন বলেন, এই সিআরবি আমাদের শৈশবের স্মৃতিধন্য স্থান। শুধু গাছ নয় আমরা সিআরবির পুরো জায়গাটাই রক্ষা করতে চাই। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের স্মৃতিধন্য সিআরবি। ১৯৭১ এ স্বাধীনতা যুদ্ধে বহু মানুষ শহীদ হয়েছেন এখানে।

সংবিধানের দ্বিতীয় ভাগের ২৪ ধারায় বলা আছে, ঐতিহাসিক স্থাপনা ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত স্থান রক্ষা করতে হবে। তা এক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। এখানে সাংস্কৃতিক বলয় গড়ে উঠেছে। সিআরবি ভবন ব্রিটিশ স্থাপত্যের শেষ কয়েকটির একটি। রেলের যে হাসপাতাল সেটাকে পুনরুজ্জীবিত করে ব্যবহার উপযোগী করা যেতে পারে।

কোনো বাণিজ্যিক হাসপাতাল নয়। পিপিপি মানে জনগণের টাকা, জনগণের টাকায় ধনীদের হাসপাতাল চাই না। এ সঙ্গে ডিসি হিল রক্ষার আন্দোলনও আমরা চালিয়ে যাব। সেখানে যাতে সুস্থ সংস্কৃতির চর্চার সুযোগ থাকে।

বোধন আবৃত্তি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রণব চৌধুরীর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগরীর সভাপতি ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহফুজুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুচ, নগর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক নাজিমুদ্দিন শ্যামল, নাগরিক সমাজের পক্ষে বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব মহসীন কাজী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলীউর রহমান, অধ্যাপক মোহাম্মদ ইদ্রিস আলী, সিপিবি নেতা নূরুচ্ছফা ভুঁইয়া, পরিবেশবাদী সংগঠন পিপলস ভয়েসের সভাপতি শরীফ চৌহান, নগর আওয়ামী লীগ নেতা জামশেদুল আলম চৌধুরী, শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক আসিফ সিরাজ, সাংবাদিক ঋত্তিক নয়ন, নগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি আ ফ ম সাইফুদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি এনি সেন প্রমুখ। প্রতিবাদি আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তি শিল্পী রাশেদ হাসান ও মিলি চৌধুরী।

সংহতি জানান বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী চট্টগ্রাম এর আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, কবি সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সাবেক সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, সাংস্কৃতিক সংগঠক শীলা দাশগুপ্তা, ন্যাপ নেতা মিঠুল দাশগুপ্ত, হাসান মনসুর নগর কৃষক লীগ নেতা হুমায়ন কবির মাসুদ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শাহাদাত নবী খোকা, সাংবাদিক মহররম হোসেন, পার্থ প্রতিম বিশ্বাস, আমিন মুন্না, রাহুল দত্ত, টিটু দত্ত, মিনহাজুল ইসলাম ও বিনয় ভৌমিক প্রমুখ।

সংহতি জানায় আমরা কৃষকের সন্তান পরিষদ, প্রমা, বোধন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী চট্টগ্রাম এর আহ্বায়ক কমিটি, খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগরী, ছাত্র ইউনিয়ন, উদীচী চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ মানবাধিকার ও পরিবেশ ফাউন্ডেশন, আমরা চট্টগ্রামবাসী, স্মাইল বাংলাদেশ, মানবিক সংগঠন মুসাফির, বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশন দক্ষিণ জেলা, ভয়েস অব চট্টগ্রাম, জাগো চট্টগ্রাম বাঁচাও সিআরবি, অদিতি সঙ্গীত নিকেতন।

ডিখ/প্রিন্স