এবার কোতোয়ালী থানার ওসির গাড়িতে হাসপাতালে গেল প্রসূতি নারী

কোতোয়ালী থানার-ওসির গাড়িতে-হাসপাতালে-প্রসূতি নারী

দেশের খবর,মহানগর।। সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রামেও চলছে কঠোর বিধিনিষেধ। সড়কে নেই গণপরিবহন। এদিকে হঠাৎ করেই প্রসব বেদনা উঠায় হাসপাতালে যাওয়ার জন্য সড়কে বের হয়ে বিপদে পড়েছেন ১০ মাসের অন্তঃসত্ত্বা কুলসুম বেগম (২২)।

তার স্ত্রীর এমন গুরুতর অবস্থায় সড়কে গণপরিবহণ না পেয়ে কি করবেন ভেবে অস্তির স্বামী ওমর ফারুক শান্ত। তাৎক্ষনিক মানবিক পুলিশ টিমের কথা তার স্মরণে আসে।

নিকটস্থ কোতোয়ালী থানার ওসির মোবাইলে ফোন করে তার সমস্যার কথা খুলে বলেন। তাৎক্ষনিক ওসি মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন তার গাড়িতে করেই ওই প্রসূতি নারীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

আজ শনিবার (২৪ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩ টার সময় কোতোয়ালি থানার কর্তব্যরত অফিসার এস আই আফরোজা চৌধুরী ও কনস্টেবল আনিসকে ওসির সরকারি গাড়ি দিয়ে কুলসুমকে চমেক হাসপাতালে পৌছে দেন।

স্বামী ওমর ফারুক শান্ত জানায়,সাম্প্রতিক সময়ে কঠোর লকডাউনে কোন গাড়ি না পেয়ে ১০ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে খুব বিপদে পড়েছিলাম। চরম এ বিপদের হাত থেকে রক্ষা করেছেন কোতোয়ালী থানার ওসি মো. নেজাম উদ্দিন।

তিনি তার নিজের ব্যবহারের সরকারি গাড়িতে করে আমার স্ত্রীকে হাসপাতালে পৌছে দিয়েছেন। আমি অত্যন্ত খুশী এবং কোতোয়ালী থানার সকল পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছে চির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন বলেন, দিনমজুর ওমর ফারুকের ফোন পেয়ে তার প্রসূতি অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিরাপদে হাসপাতালে পৌছে দিতে পেরে নিজের কাছেও ভাল লাগছে।

ওসি বলেন, টিম কোতোয়ালী সার্বক্ষণিক জনগণের সহায়তায় এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত। যে কোন প্রয়োজনে সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে টিম কোতোয়ালি।

ডিখ/প্রিন্স