করোনার বিষে দেশে তৃতীয় সর্বোচ্চ ২৩৯ জনের মৃত্যু

করোনার বিষে-আক্রান্ত-দেশে-সর্বোচ্চ-মৃত্যু

দেশের খবর,জাতীয়।। দেশে মহামারী করোনার বিষে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দুইশর নিচে নামছেই না। গত ২৪ ঘন্টায় সারাদেশে নতুন করে ২৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে এক দিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর তালিকায় এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ।

এর আগে ২৭ জুলাই দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছিলো। তাছাড়া গতকাল বুধবার ২৩৭, গত সোমবার ২৪৭, রবিবার ২২৮, শনিবার ১৯৫ ও শুক্রবার ১৬৬ জনের মৃত্যু হয়।

গত ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়ায়। এদিন মৃত্যু হয় ২০১ জনের। গত ২৪ ঘণ্টার মৃত্যু নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২০ হাজার ২৫৫। এখন পর্যন্ত সংক্রমণের বিপরীতে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে গত ২৪ ঘণ্টার করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে নতুন করে আরও ১৫ হাজার ২শ ৭১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এটি এক দিনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংক্রমণ। এর আগে গতকাল এ সংখ্যা ছিলো ১৬ হাজার ২৩০ জন। যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংক্রমণ।

নতুন শনাক্তদের নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১২ লাখ ২৬ হাজার ২৫৩ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৪ হাজার ৩৩৬ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়া ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়াল মোট ১০ লাখ ৫০ হাজার ২২০ জনে। সংক্রমণ বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ২৩৯ জনের মধ্যে পুরুষ ১২৩ জন, নারী ১১৬ জন। তাদের মধ্যে বাসায় ১৫ জন ও বাকি ২২৪ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

এদিন সর্বোচ্চ ৭৬ জন মারা গেছেন ঢাকা বিভাগে, চট্টগ্রাম বিভাগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৭ জন, খুলনা বিভাগে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৪৫ জন মারা গেছেন। এছাড়া বরিশাল ও সিলেট বিভাগে মারা গেছেন ১৪ জন করে, ১৩ জন মারা গেছেন রাজশাহী বিভাগে, ১১ জন রংপুর বিভাগে। আর ময়মনসিংহ বিভাগে মারা গেছেন ৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে মৃত ২৩৯ জনের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব ১২৩ জন। এর মধ্যে ৬১ থেকে ৭০ বছর বয়সী ৬৫ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছর বয়সী ৪৩ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছর বয়সী ১৪ জন ও ৯১ থেকে ১০০ বছর বয়সী ছিলেন এক জন।

এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ৫৭ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ২৬ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ১৫ জন, ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ১৪ জন ও ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী তিন জন মারা গেছেন গত ২৪ ঘণ্টায়। এই সময়ে একশ বছরের বেশি বয়সী কেউ মারা যাননি, তবে ১০ বছরের কম বয়সী একজনের মৃত্যু হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তির তথ্য বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৫৫ হাজার ২৭১টি, পরীক্ষা হয়েছে ৫২ হাজার ২৮২টি। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসের মোট নমুনা পরীক্ষা হলো ৭৬ লাখ ৬৪ হাজার ৮৭০টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণ শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ২১ শতাংশ। আর এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণ শনাক্তের হার বাড়তে বাড়তে ১৬ শতাংশে ঠেকেছে।

ডিখ/প্রিন্স